হাতুড়ি দিয়ে মাকে খুন !

হাতুড়ি দিয়ে মাকে খুন !

রাজশাহী ব্যুরোঃ

নেশার টাকা না দেয়ায় রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায় হাতুড়ির আঘাতে মাকে খুন করেছেন এক মাদকাসক্ত যুবক। রোববার দিবাগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে গোদাগাড়ী পৌরসভার আরিজপুর মহল্লায় এ ঘটনা ঘটেছে।

নিহত নারীর নাম সেলিনা বেগম (৫০)। তার স্বামীর নাম মো. শাহাবুদ্দিন। ঘটনার পর থেকে ছেলে আবদুস সালেক (৩২) পলাতক। উচ্চশিক্ষিত সালেক দীর্ঘদিন ধরেই মাদক সেবন করেন। গোদাগাড়ী থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, রাতে বাড়িতে সালেক ও তার মা সেলিনা বেগম ছাড়া আর কেউ ছিলেন না। এ সময় নেশা করার জন্য সালেক তার মায়ের কাছে টাকা চান। কিন্তু মা টাকা দিতে রাজি হননি। এর ফলে ক্ষিপ্ত হয়ে সালেক তার মায়ের মাথায় হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করেন।  ঘটনাস্থলেই মা সেলিনা বেগমের মৃত্যু হয়।

এরপর সালেক গলায় রশি পেঁচিয়ে মায়ের মরদেহ ঝুলিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেন যাতে সবাই আত্মহত্যা বলে মনে করে। কিন্তু গলায় ফাঁস লাগানো থাকলেও শরীরের বেশিরভাগ অংশ মেঝেতেই ছিল। আবার মাথা থেকে রক্ত ঝরছিল। ঘটনাস্থল পড়ে ছিল হাতুড়িও। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে হাতুড়ি জব্দ করেছে।

ওসি আরও জানান, ঘটনার পর থেকে ছেলে সালেক পলাতক। তাকে আটকের চেষ্টা চলছে। সোমবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে গোদাগাড়ী সার্কেলের এএসপি আবদুর রাজ্জাক জানান, নিহত সেলিনা বেগমের ছেলে আবদুস সালেক উচ্চশিক্ষিত। কিন্তু দীর্ঘদিন থেকে মাদকাসক্ত। সালেক কয়েকদিন আগে ভারত থেকে বাংলাদেশে আসেন। এরপর থেকেই মায়ের কাছে টাকা নেয়ার জন্য চাপ দিচ্ছিলেন। অবশেষে টাকার কারণেই মাকে খুন করলেন। এ ঘটনায় সালেকের বিরুদ্ধে থানায় হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন তার বাবা স্কুলশিক্ষক মো. শাহাবুদ্দিন বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

শেয়ার করুন