ছেলের লাঠির আঘাতে পিতার মৃত্যু !

ছেলের লাঠির আঘাতে পিতার মৃত্যু !

মিজানুর রহমান

দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার পল্লীতে সিংগানগরে দ্বিতীয় বিয়ের অপরাধে পুত্রের উপুর্যপরি লাঠির আঘাতে পিতার ঘটনাস্থলেই মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনাটি গত ২১শে ডিসেম্বর শুক্রবার দিবাগক রাত আনুমানিক ১১টায় উপজেলার তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের সিংগানগর গ্রামের গমিরশাহ্পাড়ায় ঘটেছে। এ ঘটনায় নিহতের মেয়ে শিল্পী বেগম বাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। প্রত্যক্ষদর্শী নিহতের নববিবাহিতা স্ত্রী সেলিনা বেগম (৪০) জানান, ঢাকার গাজিপুরের শ্রীপুরে গার্মেন্টেসে চাকুরি করার সুবাদে আব্দুস সাত্তারের (৬৫) সাথে আমার পরিচয় হয় এবং বিবাহবন্ধে আবদ্ধ হই। গত ২১শে ডিসেম্বর শুত্রবার দিবাগত রাতে গ্রামের স্বামীর নিজ বাড়িতে পৌঁছে সাথে নিয়ে আসা দুই ছেলেকে দিতে ঘরে গেলে ওই সময় পূর্বেও মৃত স্ত্রীর ছেলে সন্তান আবু সাইদ (২৭) বাবাকে ঘরে বসতে দেয় এবং পিতার ২য় বিয়ে মেনে নিতে না পেরে ক্ষুদ্র হয়ে বাহির থেকে লাঠি নিয়ে এসে ঘরের দরজা বন্ধ করে পিতা আব্দুস সাত্তারের উপুর্যপরি আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলেই পিতা মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। মৃত্যু নিশ্চিত হওয়ার পর ছেলে ঘটনাস্থল থেকে প্যান্ট-শার্ট পরে পালিয়ে যায়। সংবাদ পেয়ে থানা পুলিশের এসআই আতিকুজ্জামান ঘটনাস্থলেই পৌঁছে মরদেহ উদ্ধার করে চিরিরবন্দর থানায় নিয়ে আসেন এবং ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন।মামলার তদন্তকারী আতিকুজ্জামান জানান, আলামত জব্দ রযেছে। পলাতক আবু সাইদকে আটকের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। উল্লেখ্য যে, মৃত আব্দুস সাত্তারের প্রথম স্ত্রী গত ৩ মাস পূর্বে ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করলে তিনি দ্বিতীয় বিয়ে করেন। ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যেও সৃষ্টি করেছে।

শেয়ার করুন