নেত্রকোনায় শিশু সজিব হত্যাঃপৃথক মামলা দায়ের

নেত্রকোনায় শিশু সজিব হত্যাঃপৃথক মামলা দায়ের

অনলাইন ডেস্ক :

নেত্রকোনায় শিশু সজিবকে মাথা কেটে হত্যা ও শিশু হত্যার অভিযোগে মাদকাসক্ত যুবক রবিনকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় নেত্রকোনা মডেল থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।শুক্রবার নেত্রকোনা পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে জেলা পুলিশ আয়োজিত মিট দ্যা প্রেস অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানানো হয়।

শিশু সজিবকে নৃশংসভাবে মাথা কেটে হত্যার ঘটনায় সজিবের বাবা রইস উদ্দিন বাদী একটি মামলা করেন। মামলায় গনপিটুনিতে নিহত যুবক রবিনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ব্যক্তিদেরকে আসামি করা হয়। গণপিটুনিতে নিহত যুবক রবিন হত্যার ঘটনায় নেত্রকোনা মডেল থানার এএসআই রফিক বাদী হয়ে অজ্ঞাত সংখ্যক ব্যক্তিকে আসামি করে অপর মামলাটি দায়ের করেন।

পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে মিট দ্যা প্রেস অনুষ্ঠানে নেত্রকোনার পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরী জানান, কতিপয় লোক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ছেলে ধরা ও পদ্মা সেতুতে শিশুর মাথা দেওর কথা বলে যে গুজব ছড়াচ্ছে তা আদৌ সত্য নয়। নিতান্তই বিভ্রান্তিমূলক। শিশু সজিবের গলা কাটার বিষয়টি শুধুমাত্র একটি হত্যাকাণ্ড। ওই গুজবের সাথে এর কোন সম্পর্ক নেই। তিনি অভিভাবকদের আতংকিত না হওয়ারও পরামর্শ দেন।

মিট দ্যা প্রেস অনুষ্ঠানে জানানো হয়, পুরনো কোনো জেদ বা বিকৃত মানসিকতা থেকেই শিশু সজিব খুনের বর্বরোচিত এ ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। পুলিশের তদন্ত অব্যাহত আছে। ঘটনার পর যুবক রবিনের ব্যবহার করা মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়েছে। প্রযুক্তি ব্যবহার করে জব্দকৃত মোবাইল ফোন থেকে তথ্য উদ্ধারে কাজ করছে পুলিশ। দ্রুত সময়ের মধ্যেই হত্যাকাণ্ডের মূল রহস্য উদঘাটন করা হবে।

অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) এসএম আশরাফুল আলম, মোঃ শাহজাহান মিয়া (অপরাধ), মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান জুয়েল (সদর সার্কেল), নেত্রকোনা মডেল থানার ওসি মোঃ তাজুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, গতকাল বৃহস্পতিবার নেত্রকোনা পৌরসভার কাটলী এলাকার মাদকাসক্ত যুবক রবিন শিশু সজিবের গলাকাটা মাথা নিয়ে শহরে ঘোরাফেরা করার সময় জনতার পিটুনিতে নিহত হয়। আট বছর বয়সী সজিব শহরের কাটলী এলকার ভাড়াটে বাসিন্দা রিকশাচালক রইস উদ্দিনের ছেলে।

শেয়ার করুন