আজ শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ০২:৫৯ অপরাহ্


কালিয়াকৈরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ্যাম্বুলেন্স চালকের বিরুদ্ধে অভিযোগ

কালিয়াকৈরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ্যাম্বুলেন্স চালকের বিরুদ্ধে অভিযোগ

কালিয়াকৈর(গাজীপুর)প্রতিনিধিঃ
গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এ্যাম্বুলেন্স চালকের বিরোদ্ধে বিভিন্ন সময় রোগীদের কাছ থেকে বারতি ভাড়া নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ওই ঘটনায় ভুক্তভোগি পরিবার কালিয়াকৈর থানায় সোমবার দুপুরে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার শ্রীফলতলী এলাকার মোসলেম উদ্দিন শারীরিক অসুস্থ হওয়ায় ২৪ শে অক্টোবর তারিখে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। অবস্থার অবনতি হলে জরুরী বিভাগের ডাক্তার তাকে ঢাকা হুদরোগ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। পরে উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এ্যাম্বুলেন্স ভাড়া নিধারণ করে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হলে উপজেলার খাড়াজোড়া এলাকায় পৌছালে এ্যাম্বুলেন্সের চালক জনি মিয়া বলেন আমি ঢাকা গেলে আজ কালিয়াকৈর ফিরব না আপনারা যারা ঢাকা থেকে বাড়িতে ফেরত আসবেন তারা গাড়ি থেকে নেমে যান। পরে খাড়াজোড়া এলাকায় আমি নেমে যায়। পরে আমার অসুস্থ ছোট ভাই,সাথে মা, ও আমার দুলাভাইকে নিয়ে চালক ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যান। হাসপাতালে পৌছিয়ে চালক আমার দুলাভাইকে নিরর্ধারিত ফ্রি ছাড়াও তাকে ২০০০হাজার টাকা বারতি দিতে হবে বলে দাবি করেন।তার দুলাভাই ৫০০টাকা দিয়ে বলেন কালিয়াকৈর আসেন পরে কথা বলবো ওই টাকাকে কেন্দ্র করে সোমবার সকালে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের গেইটের সামনে আসলে ওই রোগীর ভাই আলাউদ্দিন আলম ও এ্যাম্বুলেন্সের চালক জনির সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে চালক জনি তাকে কিল,ঘুষি মেরে আমাকে হত্যার হুমকি দিয়ে চলে যায়। পরে এব্যাপারে সোমবার সকালে কালিয়াকৈর থানায় আলাউদ্দিন বাদি হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
এ্যাম্বুলেন্স চালক জনি মিয়া বলেন, বাড়তি টাকা দাবি করার প্রশ্ন আসে না, তবে আজ সকালে ওই আলা উদ্দিন আমাকে হাসপাতালের গেইটে মারধর করেছে।
কালিয়াকৈর থানার ডিউটি অফিসার তানিয়া আক্তার জানান, ঘটনার সতত্যা শিকার করে বলেন এবিষয়ে সকালে কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

শেয়ার করুন