1. admin@protidineralo.com : admin :
শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৫:৫৬ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
কদমতলী সাংবাদিক ক্লাবের নবনির্বাচিত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক কে অভিনন্দন কদমতলী সাংবাদিক ক্লাবের আত্মপ্রকাশ মুন্সীগঞ্জ কৃতি সন্তান র‌্যাবের নতুন ডিজি হলেন ব্যারিস্টার হারুন কদমতলী থানা প্রেসক্লাবের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান সম্পন্ন হাবিবুর রহমান মোল্লার চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী আজ রাজধানীর কদমতলী থানাধীন রায়েরবাগে চোরাই পিকআপ সহ তিন সক্রিয় চোরাই সদস্যকে আটক করেছে কদমতলী থানা পুলিশ টঙ্গীবাড়ীতে নির্বাচনী দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিকের উপর হামলা পথচারীদের জন্য ঠান্ডা পানির ব্যবস্থা করেন শ্যামপুর থানা প্রেসক্লাব ঢাকা রাজধানী যাত্রাবাড়ী থেকে ১৫ জন পরিবহন চাঁদাবাজকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১০ কদমতলীতে চিকিৎসা অবহেলায় নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ

“উপকার রোগের কঠিন ঔষধ বাঁশ”

  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ৩১ জানুয়ারি, ২০২৪
  • ৬০ বার পঠিত

কলমে- জান্নাতুল আরেফ চৌধুরী (মিথিলা)

নন্দকে আজ আনতে দিলাম বাজার থেকে হাঁস, মনের ভুলে আনলো এক মস্ত বড় বাঁশ।

হাঁস আনতে বাঁশ আনলো একি সর্বনাশ, এটা নাকি ফ্রি পেয়েছে নেয়নি কোনো দাম, উপকার রোগের কঠিন ঔষধ করবে দ্রুত কাম।

কেঁদে কেঁদে বলছে নন্দ হাঁসের অনেক দাম, কাণ্ড দেখে সবাই বলে নন্দ এবার থাম।

কানে কম শুনলে এ দুর্গতি, নন্দর কি দোষ ভাই, উপকারের প্রতিদান এই সমাজে বাঁশটা দিয়ে যায়।

মনের দুঃখে নন্দ এবার করলো বাশের চাষ, বাঁশের ঝারে বসে নাকি ড়িম পাড়ছে হাঁস।

বোকা নন্দ পাড়ায় গিয়ে বলে বেড়ায়, ডিম দিয়েছে বাঁশ, মাসখানেক পর পাবে রে ভাই নানান জাতের বাঁশ।

কেমন করে পাড়লো ড়িম, তোর লম্বা বাঁশে, নন্দর বিচার হবে নাকি আজ বেলা সাঁঝে।

গাঁয়ের মোড়ল পান চিবিয়ে বললো বিচার শেষ, বাঁশ খুঁজতে কষ্ট হবে না, কাজ করেছিস নন্দ বেশ।

Facebook Comments Box
এই জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৪ প্রতিদিনের আলো
Theme Customized By Shakil IT Park