লামায় কোমলমতি শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই

লামায় কোমলমতি শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই

লামা(বান্দরবান)প্রতিনিধি

শিক্ষা নিয়ে গড়ব দেশ, শেখ হাসিনার বাংলাদেশ‘ এ শ্লোগানকে মূল প্রতিপাদ্য করে সারা দেশের ন্যায় বান্দরবানের লামা উপজেলায়ও স্কুল ও মাদরাসার কোমলমতি শিক্ষার্থীর হতে তুলে দেয়া হয়েছে নতুন  বই।প্রথম শ্রেণি থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত বিনামূল্যের এসব বই একযোগে উপজেলার ১০১টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২২হাজার ৯৪৩জন শিক্ষার্থীর হাতে ১ লাখ ৭হাজার ৯০৭টি, ২৯টি মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ভোকেশনাল, মাদরাসার ইবতেদায়ী এবং দাখিল শ্রেণির ১৪ হাজার ২০০শিক্ষার্থীর হাতে ১লাখ ৮৩ হাজার ৮৫০টি বই তুলে দেয়া হয়।বছরের শুরুর দিনে নতুন বই হাতে পেয়ে উৎসবে মেতে উঠে শিক্ষার্থীরা। গত ১০ বছর ধরে প্রতিবারই ১ জানুয়ারি নতুন বই শিশুদের হাতে তুলে দেয়া হয়। দিনটি বই উৎসব হিসেবে পালন করে আসছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো।এ উপলক্ষে মঙ্গলবার সকালে নুনারবিল সরকারী মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি ও পৌরসভা মেয়র মো. জহিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বই বিতরন উদ্ভোধন করেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর-এ-জান্নাত রুমি।বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাহেদ সরোয়ারের সঞ্চালনায় এতে আলীকদম বিজিবি’র ক্যাপ্টেন মুরাদ মাজেদ, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান ভুইয়া, প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তপন কুমার চৌধুরী, সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আশীষ কুমার মহাজন, ওযার্ড কাউন্সলর জাহানারা বেগম বিশেষ অতিথি ছিলেন।এর আগে নির্বাহী অফিসার ও পৌরসভার মেয়র পৌরসভা এলাকার ১১টি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বই বিতরণ উদ্বোধন। বিষয়ে নুনারবিল সরকারী মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাহেদ সরোয়ার বলেন, বছরের প্রথম দিনেই আনুষ্ঠানিকভাবে বিদ্যালয়ের ৫৩০জন শিক্ষার্থীর হাতে নতুন বই তুলে দেয়া হয়েছে।এছাড়াও হলিচাইল্ড পাবলিক স্কুল ম্যানেজিং কমিটিরি সভাপতি মো. তানফিজুর রহমান বলেন, তাদের বিদ্যালয়েও শিক্ষার্থীদেরকে শতভাগ বই দেয়া হয়েছে।এদিকে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মোস্তাফিজুর রহমান ভুইয়া বলেন, উপজেলায় মোট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা ১০১টি, মাধ্যমিক ও মাদ্রাসার সংখ্যা ২৯টি। এসব বিদ্যালয়ে মোট শিক্ষার্থী রয়েছে ৩৭ হাজার ১৪৩ জন।এসব শিক্ষার্থীদের জন্য ৩ লাখ ৫৪ হাজার ৭৫৭টি বইয়ের চাহিদা রয়েছে। চাহিদা অনুযায়ী প্রায় শতভাগ বই সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানে দেয়া হয়েছে। একযোগে প্রত্যেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আনুষ্ঠানিকভাবে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেয়া হয়। বাংলা, ইংরেজি, গণিত, সমাজ, বিজ্ঞান, ইসলাম ধর্ম শিক্ষা, হিন্দু ধর্ম, খ্রিস্টান ধর্ম, বৌদ্ধ ধর্ম শিক্ষাসহ প্রাথমিকের ৯টি বিষয়ের বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

শেয়ার করুন