শিরোনাম

আজ শুক্রবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৯, ০৫:০১ পূর্বাহ্ন


বগুড়ার ৩ ইউপির উপনির্বাচন ২৫ জুলাই

বগুড়ার ৩ ইউপির উপনির্বাচন ২৫ জুলাই

বগুড়া প্রতিনিধিঃ

আগামী ২৫ জুলাই বগুড়া জেলার তিনটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচনের প্রচারণা জমে উঠেছে। আ.লীগ তিনটিতে দলীয়ভাবে নৌকা প্রতীকে অংশ নিলেও  বিএনপি অংশ নিচ্ছে একটিতে।এর কারণ হিসেবে জানা গেছে, স্থানীয় সরকার  নির্বাচনে বিএনপির হাইকমান্ড দলীয় প্রতীক বরাদ্দ না দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়ায় বিএনপির স্থানীয় নেতারা নির্বাচনে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন। ফলে আ.লীগের প্রার্থীর সাথে কোথাও আ.লীগ,  কোথাও যুবলীগ, কোথাও স্বতন্ত্র বা কোথাও জাতীয় পার্টির প্রার্থীর মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস পাওয়া গেছে।তবে প্রতিটি ইউপিতেই আ.লীগ ছাড়া অন্য প্রার্থীরা ভোট ডাকাতি বা কারচুপির আশংকা প্রকাশ করেছেন। এজন্য তারা নির্বাচন কর্মকর্তা ও আইন-শৃংখলা বাহিনীর প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ কামনা করেছেন।

শাখারিয়া ইউনিয়ন পরিষদ: বগুড়া সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বগুড়া সদর উপজেলার শাখারিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান উপজেলা আ.লীগ সভাপতি আবু সুফিয়ান শফিক বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নেয়ার আগে ইউপি চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগের কারণে পদটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। এরপর ২৫ জুলাই নির্বাচনের দিন ঠিক করে তফশিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।
এখানে শাখারিয়া ইউনিয়ন আ’লীগের নেতা এনামুল হক রুমি দলীয় প্রার্থী হিসেবে  নৌকা  প্রতীক এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতি প্রভাষক এবিএম কামরুল হুদা উজ্জল আনরাস প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এখানে মোট ভোটার ১১ হাজার ২৯৭ জন। আগামী ২৫ জুলাই সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত একটানা ৯টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ করা হবে। উভয় প্রার্থী বিজয়ের লক্ষ্যে ভোটারদের কাছে ছুটে যাচ্ছেন। স্থানীয় আ’লীগ ও যুবলীগ নির্বাচন কেন্দ্র থেকে দুভাগে ভাগ হয়েছেন।

নির্বাচনে ভোট ডাকাতির  আশংকা প্রকাশ করে স্বতন্ত্র প্রার্থী উজ্জল ইতোমধ্যে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এএসএম জাকির হোসেনের কাছে ৬টি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করে পদক্ষেপ নেয়ার আবেদন করেছেন।তিনি বলেছেন, নৌকার প্রার্থী এসব কেন্দ্রে ভোট ডাকাতি করতে পারে। এখানে বিএনপির কেউ নির্বাচনে অংশ নেননি।

রায়নগর (শিবগঞ্জ) ইউনিয়ন পরিষদ: শিবগঞ্জ উপজেলার রায়নগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফিরোজ আহমেদ রিজু বিগত শিবগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার আগে পদত্যাগ করায় পদটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। এরপর ২৫ জুলাই ভোটের দিন ঠিক করে তফশিল ঘোষণা করা হয়। এখানে ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।তারা হলেন, আ’লীগ প্রার্থী উপজেলা যুবলীগের সাংগাঠনিক সম্পাদক তাজুল ইসলাম (নৌকা), স্বতন্ত্র প্রার্থী জাতীয় পার্টির সালাহ উদ্দিন মিল্লাত (আনারস), নাছিম পারভেজ  (ঘোড়া) শফিকুল ইসলাম ও আ’লীগের সমর্থক আব্দুর রশিদ (মোটরসাইকেল)। এখানে তিন প্রার্থী মিল্লাত, শফিক ও তাজুলের মধ্যে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হতে পারে। এখানে মোট ভোটার ২৪ হাজার ২৮১ জন।

শফিক রোববার থেকে প্রচারণা শুরু করেছেন। তবে মিল্লাতের পাল্লাই ভারী বলে ভোটাররা জানিয়েছেন। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে তিনিই বিজয়ী হতে পরেন। এখানে বিএনপি অংশ নেয়নি। রাশ্বেরপুর (গাবতলী) ইউনিয়ন পরিষদ: বিগত গাবতলী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতার আগে পদত্যাগ করেন আ’লীগ নেতা ও ইউপি চেয়ারম্যান রফি নেওয়াজ খান রুবিন। সে কারণে আগামী ২৫ জুলাই চেয়ারম্যান পদে রামেশ্বরপুর ইউনিয়ন পরিষদ উপনির্বাচন হচ্ছে। এখানে প্রার্থী রয়েছেন ৩ জন। তারা হলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা ও সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব (মোটরসাইকেল), আ’লীগ প্রার্থী সেকেন্দার আলী (নৌকা) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মতিউর রহমান (আনারস)। এখানে বিএনপি দলীয়ভাবে অংশ নেয়নি এবং প্রতিীক বরাদ্দ দেয়নি। এখানে মোট ভোটার ২১ হাজার ৫৯৭ জন।

প্রতি/আজাদ

শেয়ার করুন