1. admin@protidineralo.com : admin :
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১০:৩৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
কদমতলী থানা প্রেসক্লাবের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান সম্পন্ন হাবিবুর রহমান মোল্লার চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী আজ রাজধানীর কদমতলী থানাধীন রায়েরবাগে চোরাই পিকআপ সহ তিন সক্রিয় চোরাই সদস্যকে আটক করেছে কদমতলী থানা পুলিশ টঙ্গীবাড়ীতে নির্বাচনী দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিকের উপর হামলা পথচারীদের জন্য ঠান্ডা পানির ব্যবস্থা করেন শ্যামপুর থানা প্রেসক্লাব ঢাকা রাজধানী যাত্রাবাড়ী থেকে ১৫ জন পরিবহন চাঁদাবাজকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১০ কদমতলীতে চিকিৎসা অবহেলায় নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ বিপুল পরিমাণ নকল জুস জব্দ, কারখানার মালিকের কারাদণ্ড জুরাইনে ডিএমপি ট্রাফিকের  উদ্যোগে শ্রমজীবী ও পথচারীদের  মাঝে বিশুদ্ধ  পানি ও খাবার স্যালাইন বিতরণ ডেমরায় ইষ্টার্ণ হাউজিংয়ে সাংবাদিকদের উপর সন্ত্রাসী হামলা।

মুন্সীগঞ্জে পুলিশ ফাঁড়ির সামনে সাবেক যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৮ এপ্রিল, ২০২৪
  • ৬১ বার পঠিত
{"remix_data":[],"remix_entry_point":"challenges","source_tags":["local"],"origin":"unknown","total_draw_time":0,"total_draw_actions":0,"layers_used":0,"brushes_used":0,"photos_added":0,"total_editor_actions":{},"tools_used":{},"is_sticker":false,"edited_since_last_sticker_save":false,"containsFTESticker":false}

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ-

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ি উপজেলায় পূর্ব বিরোধের জেরে পুলিশ ফাঁড়ির সামনে দুইপক্ষের মারামারির সময় সোহরাব খান (৫৫) নামে সাবেক যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছে নিহত সোহরাবের ছেলে জনি খান (৪২)।

তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সোমবার বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে দীঘিরপাড় বাজার এলাকায় ওই হামলার ঘটনা ঘটে।

নিহত সোহরাব দিঘীরপাড় ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি ও স্থানীয় খান বাড়ির বাসিন্দা।

এদিকে ঘটনার পর দিঘীরপাড় পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ শাহ আলমের সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ তোলে তদন্ত কেন্দ্রে হামলা ও ভাঙচুর করেছে উত্তেজিত জনতা। এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করায় মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত সোহরাব খানের সঙ্গে ওই এলাকার সাবেক ইউপি সদস্য ভোলা হালদার ওরফে ভোলা মেম্বারের আর্থিক লেনদেন নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।

সেই ঘটনায় সোমবার দিঘীরপাড় পুলিশ তদন্তকেন্দ্রে আসে দুইপক্ষ। এসময় বিরোধে জড়িয়ে পড়লে ভোলা হালদার  ও তার দুই ছেলে রিজভী ও রিহান সহ ৭-৮ জন সোহরাব খান  ও জনিকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। পরে তাদের উদ্ধার করে টঙ্গিবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক সোহরাব খানকে মৃত ঘোষণা করেন। জনির অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

নিহতের ছোট ভাই মিজান খান বলেন, দিঘিরপাড় তদন্ত কেন্দ্রের ইনর্চাজ মো. শাহআলম ডেকে এনে আমার ভাইকে হত্যা করেছে।

তিনি আরও জানান, তার ভাই সোহরাব খানকে ধাক্কা দিয়ে মাটিতে ফেলে দেন তদন্তে কেন্দ্রের ইনচার্জ মো. শাহআলম। পড়ে তার সামনে এলোপাতাড়িভাবে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করা হয়। তবে তিনি এই ঘটনাকে পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড বলেও দাবি করেন।

এ বিষয়ে টঙ্গিবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. নূরে আলম সিদ্দিকী জানান, নিহত সোহরাব খানের মাথায় ও বুকে গুরুতর ধারাল অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এছাড়া আহত জনি খানের মাথায়, বুকে ও পেটে ধারাল অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে।

এ ঘটনায় এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ সুপার আসলাম খান।

নিহতের বিষয়টি শিকার করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শ্রীনগর সার্কেল) মো. তোফায়েল হোসেন সরকার বলেন,ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করন হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তারে ইতিমধ্যে পুলিশি অভিযান শুরু হয়েছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গের পাঠানো হয়েছে।

Facebook Comments Box
এই জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৪ প্রতিদিনের আলো
Theme Customized By Shakil IT Park