আইন-আদালতসারাদেশ

শেরপুরে বহিস্কৃত প্রধান শিক্ষকের সকল কার্যক্রম অবৈধ ঘোষণা করেছে আদালত

মাহফুজ আহম্মেদ, শেরপুর(বগুড়া)প্রতিনিধি:

বগুড়ার শেরপুরের পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনী বিধি বহির্ভূত, ভুয়া ভোটারসহ তফসিল ঘোষনা ও বিভিন্ন অনিয়মের বিরুদ্ধে বগুড়া সহকারী জজ আদালতে মামলা দায়ের করেন বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য শুভেন্দু লাহিড়ী। এ মামলার প্রেক্ষিতে ম্যানেজিং কমিটিকে কারণ দর্শানোসহ বহিস্কৃত প্রধান শিক্ষকের জোরপূর্বক পুন: ক্ষমতায়নের পরের সকল কার্যক্রম অবৈধ ঘোষনা করেছেন বিজ্ঞ আদালত।
মামলা সুত্রে জানা যায়, শেরপুর পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে নতুন কমিটি করার জন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা ও প্রিজাইডিং অফিসার মো. নাজমুল হক অবৈধ পন্থায় গত ২৭ আগস্ট নির্বাচনী তফসিল ঘোষনা করেন এবং স্কুল বন্ধ থাকা অবস্থায় ২৮ আগস্ট থেকে মনোনয়ন পত্র বিক্রি শুরু করেন। এদিকে নির্বাচন পরিচালনা কমিটির বিরুদ্ধে ২৩ জন ভুয়া শিক্ষার্থী দেখিয়ে ভোটার তালিকা প্রস্তুত, ৩ দাতা সদস্যকে অবগত না করে গোপনে নির্বাচনী কার্যক্রম পরিচালনাসহ আরো অনেক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। এই কারনে ম্যানেজিং কমিটির দাতা সদস্য শুভেন্দু লাহিড়ী বাদী হয়ে গত ৫ সেপ্টেম্বর বুধবার বগুড়ার শেরপুর সহকারী জজ আদালতে ১১০/২০১৮ মামলা দায়ের করেন। এ মামলা প্রেক্ষিতে শুনানী শেষে ১১ সেপ্টেম্বর ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন স্থায়ীভাবে স্থগিতসহ বহিস্কৃত প্রধান শিক্ষকের জোরপূর্বক পুন: ক্ষমতায়নের পরের সকল কার্যক্রম অবৈধ ঘোষনা সকল কার্যক্রম স্থগিত করেন বিজ্ঞ আদালত ।
এরফলে ওই বিদ্যালয়ের আইন অমান্যকারী, ঘুষ দুনীর্তি, স্বজনপ্রীতি, স্বেচ্ছাচারিতা ও অসদাচারনের অভিযোগে অভিযুক্ত বহিস্কৃত প্রধান শিক্ষক আবু সাঈদ শেখ ও আব্দুল মোমিনের স্বাক্ষরিত ব্যাংক লেনদেন এবং বিভিন্ন অফিসে বিদ্যালয় সংক্রান্ত কোন কাজে সহযোগীতার না করতে গত ১৬ সেপ্টেম্বর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ বিভিন্ন দপ্তরে অবহিতকরণ আবেদন করেছেন বলে ম্যানেজিং কমিটির দাতা সদস্য শুভেন্দু লাহিড়ী জানিয়েছেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *