জলঢাকায় ৪ ইউনিয়নের সহস্রাধিক পরিবার পানি বন্দি

জলঢাকায় ৪ ইউনিয়নের সহস্রাধিক পরিবার পানি বন্দি

ফরহাদ ইসলাম :

টানা ৭দিনের ভারী বর্ষণ ও উজানের পাহাড়ি ঢলে তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় নদীর তীরবর্তী উপজেলার ৪টি ইউনিয়নের সহস্রাধিক পরিবার পানি বন্দি হয়ে পড়েছে। এতে বিপাকে পড়েছে পানিবন্দি এলাকার শিশু,বৃদ্ধাসহ গবাদি পশু। শনিবার বেলা ৯ টায় তিস্তা ব্যারাজের ডালিয়া পয়েন্টে নদীর পানি বিপদসীমার ৪৮ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে বলে জানান,ডালিয়া ডিভিশন নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম। অব্যাহত পানি বৃদ্ধির ফলে নদীর র্তীরবর্তী নীলফামারী জেলার জলঢাকা উপজেলার গোলমুন্ডা,ডাউয়াবাড়ী, শৌলমারী ও কৈমারী ইউনিয়নের প্রায় ১২টি চর গ্রাম প্ল্যাবিত হয়েছে। এতে এসব গ্রামের সহ¯্রাধিক পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন বলে জানিয়েছেন সংশি¬ষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানগণ।

উপজেলার গোলমুন্ডা ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান তোজাম্মেল হোসেইন জানান, তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় আমার ইউনিয়নের হলদিবাড়ি, সাইফুন বাজার ও ভবনচুর গ্রামের প্রায় দুই শতাধিক পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন। এসব পরিবারগুলোর বাড়ি-ঘর হাঁটু সমান পানিতে পানিবন্দী হয়ে পড়ে। শৌলমারী ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান প্রাণজিৎ রায় পলাশ বলেন, কয়েকদিনের ভারী বর্ষনে তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যহত থাকায় আমার ইউনিয়নের বানপাড়া এলাকায় একটিবাধ হুমকির সম্মুখীন হলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করে তাৎখনিক জিও ব্যাগের মাধ্যমে রোধ করা সম্ভব হয়েছে। সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা ত্রাণ পূর্নবাসন ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ময়নুল হক এ প্রতিবেদককে জানান,পানিবন্দি পরিবার গুলোর তালিকা তৈরী করতে সংশ্লিষ্ট চেয়ারম্যানগনকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এবং সার্বিক পরিস্থিতি দেখতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ আমারা নদীর তীরবর্তী এলাকা নিয়মিত পরিদর্শন করছি।

শেয়ার করুন